English Version
আপডেট : ২৬ অক্টোবর, ২০১৭ ১১:৩৩

দুপুরে খুলছে মগবাজার-মৌচাক ফ্লাইওভার

অনলাইন ডেস্ক
দুপুরে খুলছে মগবাজার-মৌচাক ফ্লাইওভার

কিছুক্ষণ পরই চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হবে রাজধানীবাসীর বহুল আকাঙ্ক্ষিত মগবাজার-মৌচাক-মালিবাগ সমন্বিত ফ্লাইওভার। আজ বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টায় গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এ ফ্লাইওভারের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

ফলে দীর্ঘ ৬ বছরের অপেক্ষা ও দুর্ভোগের অবসান ঘটিয়ে পুরোপুরি খুলে যাচ্ছে তিনভাগে নির্মিত ৮ দশমিক ২৫ কিলোমিটারের এ ফ্লাইওভারটি। তবে দুপুর ১২টায় উদ্বোধন হওয়ার কথা থাকলেও আর যেন তর সইছে না স্থানীয়দের। কখন আসবে সেই মহেন্দ্রক্ষণ সেই অপেক্ষায় সকাল সাড়ে ৮টা থেকেই মৌচাক মোড়ের অস্থায়ী মঞ্চের সামনে হাজির হতে শুরু করেছেন তারা।
অনুষ্ঠানস্থলের সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে দায়িত্বরত পুলিশের এসআই দীপংকর বলেন, আমরা সর্বক্ষণ তৎপর রয়েছি। অনুষ্ঠানের নিরাপত্তার জন্য শুধুমাত্র স্টেজ কেন্দ্রিক এসআই লেভেল পর্যন্ত পোশাকি সদস্য রয়েছেন ২৪ জন। এ ছাড়া সিনিয়র, সাদা পোশাকসহ বিভিন্ন সদস্য রয়েছে। এর আগে মানুষের ভোগান্তি কমাতে গত বছরের ৩০ মার্চ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ ফ্লাইওভারের সাতরাস্তা-মগবাজার অংশের উদ্বোধন করেন। পরে ১৫ সেপ্টেম্বর ইস্কাটন-মৌচাক অংশের যান চলাচল উদ্বোধন করেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন। আর গত ১৭ মে খুলে দেওয়া হয় ফ্লাইওভারটির এফডিসি মোড় থেকে সোনারগাঁও হোটেল পর্যন্ত কারওয়ান বাজারমুখী অংশ।

রাজধানীর মগবাজার-মৌচাক-মালিবাগ-শান্তিনগর ও তেজগাঁওয়ের যানজট নিরসন ও অবাধ যান চলাচল নিশ্চিত করতে ২০১১ সালে মগবাজার-মৌচাক ফ্লাইওভার প্রকল্পটি গ্রহণ করে সরকার। পরে ২০১৩ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মগবাজার-মৌচাক ফ্লাইওভারের নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেছিলেন। এর পরে ধাপে ধাপে নকশা পরিবর্তন ও নির্মাণ ব্যয় বাড়তে থাকে এ প্রকল্পের। প্রথমে ২০১৪ সালের মধ্যে এ ফ্লাইওভারের কাজ শেষ হওয়ার কথা থাকলেও বিভিন্ন জটিলতায় ধাপে ধাপে মেয়াদও বাড়তে থাকে প্রকল্পের। সবশেষে সম্পূর্ণরূপে বৃহস্পতিবার উদ্বোধন হতে যাচ্ছে এ ফ্লাইওভার।