English Version
আপডেট : ১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ০৯:৪১

বৃষ্টিতে ব্যাপক জলজট-যানজটে স্থবির রাজধানী

অনলাইন ডেস্ক
বৃষ্টিতে ব্যাপক জলজট-যানজটে স্থবির রাজধানী

পবিত্র ঈদুল আজহার ছুটির পর এই প্রথম দেড়ঘন্টার ঢলে রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে ব্যাপক জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েঠে। এতে ঈদের পর প্রথমবার গোটা ঢাকা মহানগরজুড়ে নেমে আসে ভয়াবহ যানজট আর জলজটের চরম দুর্ভোগ। বিভিন্ন স্থানে জমেছে হাঁটু পানি। শুক্রাবাদ, জিগাতলা, মোহাম্মাদপুর ও ধানমণ্ডিসহ নগরের বিভিন্ন এলাকায় জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। ভাঙা রাস্তাগুলো পানিতে ডুবে যায়। বিশেষ করে ধানমণ্ডি ২৭ নম্বরে জমে যায় প্রায় হাঁটুসমান পানি। ফলে চারদিক থেকে মিরপুর রোডে সৃষ্টি হয় তীব্র যানজটের। এতে ২৭ নম্বর মোড় পার হতেই দীর্ঘ সময় লেগে যাচ্ছে। যানজটের ভোগান্তি সহ্য করতে না পেরে যাত্রীরা বাস থেকে নেমে হেঁটেই রওনা দিচ্ছেন।
বরিশাল থেকে ঈদের ছুটি কাটিয়ে ফেরা শায়লা আহমেদ বলেন, এবারের ঈদের ছুটি অনেক ভালো কেটেছে। আসলে আমরা যারা ঢাকায় থাকি বা চাকরি করি, রাজধানীর যান্ত্রিক জীবন তাদের কাছে অসহনীয় হয়ে পড়েছে।ঢাকা থেকে অল্প একটু ছাড়া পেলেই মনে হয় হাতে স্বর্গ পেলাম। কিন্তু সে অনুভূতি ঢাকায় এসেই রূপ নিল ভোগান্তিতে। জলাবদ্ধতা আর যানজট- এই দুয়ে মিলে সহ্যের বারোটা বাজিয়ে ছেড়েছে। নারী অধিদপ্তরে কর্মরত আদিল আহসানও আজকেই প্রথম অফিসে করেছেন। 
ধানমণ্ডি ২৭ নম্বরে বাস থেকে নেমে কোন দিকে যাবেন কিনারা করতে পারছিলেন না এক ভদ্রলোক। পুরোটা মোড়জুড়ে জমে গেছে হাঁটু পানি। বাধ্য হয়ে সখের জুতা-প্যান্ট ভিজিয়ে পানি মাড়িয়ে শুরু করলেন হাঁটা। তিনি বলেন, ছুটি কাটিয়ে গতকাল ফিরেছি; আবার সেই সময়-নষ্ট, যানজট, জলাবদ্ধতার নিয়ে বিরক্তিকর জীবন শুরু। গ্রামে যখন ছিলাম ঢাকার যানজটের কথা মনে পড়লে খুব খারাপ লাগত। দিন দিন ঢাকার যানজট আর জলজট অসহ্য হয়ে পড়ছে।
ধানমণ্ডি ২৭ নম্বরে একটুখানি বৃষ্টি হলেই পানি জমে একাকার হয়ে যায় পথঘাট। তার উপর আজকের মুষল বৃষ্টিতে জমে গেছে হাঁটুপানি। এখানে পানি সরতেও ৩ থেকে ৪ ঘন্টা লেগে যায় বলে জানান এনায়েত নামে রাপা প্লাজার এক কর্মচারি। তিনি বলেন, এখানে একবার পানি জমলে ৩-৪ ঘন্টা লাগে নামতে। আর বৃষ্টি বেশি হলে সারাদিনেও  পানি নামে না। এ কারণে এখানে অসহনীয় যানজট হয়। আর এই এলাকার যানজটের কারণে নীলক্ষেত মোড়, সায়েন্স ল্যাব মোড়,সিটি কলেজ মোড়, কলাবাগান, শুক্রবাদ মোড় পার হতে পরিবহনগুলোর দীর্ঘ সময় লাগছে।