English Version
আপডেট : ১৯ জানুয়ারি, ২০১৮ ১১:৩৮

আনসাররা অস্ত্রের জোরে মানুষের ভিটেমাটি দখল করেছে!

অনলাইন ডেস্ক
আনসাররা অস্ত্রের জোরে মানুষের ভিটেমাটি দখল করেছে!

রাজধানীর ভাটারা মৌজায় প্রায় ৭০ বিঘা ব্যক্তি মালিকানাধীন জায়গা অবৈধভাবে দখল করে নিয়েছেন আর্মড আনসার ব্যাটালিয়নের সদস্যরা। প্রায় ৭০ বিঘা এসব জায়গা সাধারণ মানুষের। ৩, ৪, ৫ কাঠা আকারে সাধারণ মানুষের এসব প্লট দখল করে আর্মড আনসার ব্যাটালিয়নের সদস্যরা সেখানে তাবু টাঙ্গিয়ে দখল করে রেখেছেন। 

আনসার সদস্যদের এমন দখলের ঘটনায় সাধারণ জমির মালিকরা অসহায় হয়ে পড়েছেন। ভিটেমাটি হারিয়ে সাধারণ মালিকরা বাকরুদ্ধ। কার কাছে তারা বিচার চাইবেন তা বুঝতে পারছেন না। একজন মালিক বলেন, আমরা উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের দৃষ্টি আর্কষণ করছি। আশা করছি এই অন্যায়ের হাত থেকে আমাদের রক্ষা করবেন।

ওই ৭০ বিঘা জমির মধ্যে ৩৩ শতক জায়গার মালিক মাহাবুবুল হক চৌধুরী। তিনি পূর্বপশ্চিম নিউজকে বলেন, ব্যক্তি মালিকানায় ৩৩ শতক জায়গা আমার নামে সাফ কাওলা দলিল করা। ওই জায়গা আমার দখলেও ছিল। আমার জায়গায় অনেক আগে থেকেই সীমানা প্রাচীর দেয়া আছে। আজ আমি আমার জায়গায় গেলে আনসার সদস্যরা বাঁধা দেয়। তারা আমার লোকদের মারধর করেন। আমার অনুমতি ছাড়া কিভাবে আনসার সদস্যরা আমাদের জায়গায় তাবু টানিয়েছে তা বুঝতে পারছি না। এই ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট থানায় মামলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলেও জানা তিনি। মাহাবুবুল হক বলেন, ৩,৪,৫ কাঠা করে অনেকের ব্যক্তির জায়গা রয়েছে সেখানে। 

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ৭০ বিঘা জায়গার মধ্যে আব্দুর রব, মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম, আমিরুল ইসলাম, শাহজাহান, নূর মোহাম্মদ, নজরুল ইসলাম ডালিসহ অনেকের জমি রয়েছে। কিন্তু কাউকেই নিজেদের জমিতে যেতে দিচ্ছে না আর্মড আনসার ব্যাটালিয়ন সদস্যরা।
সরজমিনে আজ ভাটারা মৌজায় গিয়ে দেখা গেছে বিশাল এলাকাজুড়ে আনসার সদস্যরা চার-পাঁচটি তাবু টানিয়েছেন। আনসার সদস্যদের হাতে লাঠিও দেখা গেছে। তারা মারমুখী আচরণ করছেন। কোনো লোককেই এলাকায় প্রবেশ করতে দিচ্ছেন না। এলাকায় কয়েকটি কাঁচাপাকা ঘর নির্মাণ করে এসব ঘরে আনসার সদস্যরা অবস্থান নিয়েছেন।

আর্মড আনসার ব্যাটালিয়ন সদস্যদের কড়া পাহারায় ওই এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। জমির মালিকরা আতংকের মধ্যে রয়েছেন। তাদের অনেকেই ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেছেন, এটা কি মগের মুল্লুক ? ব্যক্তি মালিকানা জমিতে কিভাবে একটি বাহিনীর পরিচয় ব্যবহার করে আমাদের জমি অবৈধভাবে দখল করা হয়েছে। এদেশে কি কোনো আইন নেই।

এ বিষয়ে জানতে আর্মড আনসার ব্যাটালিয়নের সহকারি কমান্ডার ফরিদউদ্দিনের সঙ্গে কথা বললে তিনি পূর্বপশ্চিমকে বলেন, আমাদেরকে বসুমতি এখানে থাকতে দিয়েছে। তাদের সঙ্গে আমাদের চুক্তি রয়েছে। অন্যের জমিতে কিভাবে বসুমতি আপনাদের থাকার অনুমতি দেয় জানতে চাইলে ফরিদউদ্দিন কোনো  সদোত্তর দিতে পারেননি। এরপর তিনি টেলিফোনের লাইন কেটে দেন।

Source --পূর্বপশ্চিম নিউ