English Version
আপডেট : ৭ নভেম্বর, ২০১৭ ২৩:৩৩

লেকহেড গ্রামার স্কুল বন্ধ

অনলাইন ডেস্ক
লেকহেড গ্রামার স্কুল বন্ধ

রাজধানীর লেকহেড গ্রামার স্কুল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশ পাওয়ার পর জঙ্গি কার্যক্রমের দায়ে আজ মঙ্গলবার ঢাকা জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে রাজধানীর ধানমন্ডি ও গুলশানে অবস্থিত স্কুলটির দুটি শাখা বন্ধ করে দেওয়া হয়। ঢাকা জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট (জ্যেষ্ঠ সহকারী কমিশনার) মো. ইলিয়াস মেহেদী ধানমন্ডি শাখাটি বন্ধ করতে যান। জানতে চাইলে তিনি বলেন, স্কুলটির প্রশাসনিক কর্মকর্তার কাছে বিদ্যালয়ের সমস্ত কিছু জিম্মায় দিয়ে লিখিত আদায় করা হয়েছে। আগামীকাল বুধবার থেকে আর এই কোনো স্কুলের কার্যক্রম চালানো হবে না বলে লিখিতভাবে বলা হয়েছে। অন্যদিকে শরিফুল আলম নামে অপর এক নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে গুলশানের শাখাটিও বন্ধ করা হয়। প্রসঙ্গত গত ২০০০ সালে ধানমন্ডির ৬/এ সড়কে স্কুলটির যাত্রা শুরু হয়। ঢাকার রূপনগরে পুলিশের অভিযানে মেজর (অব.) জাহিদুল ইসলাম নিহত হওয়ার পর স্কুলটি আবার আলোচনায় আসে। জাহিদ সেনাবাহিনীর চাকরি ছেড়ে এই স্কুলে প্রশাসনিক কর্মকর্তা হিসেবে যোগ দিয়েছিলেন।
এর আগে গত রোববার এক চিঠিতে এই স্কুলটি বন্ধের ব্যবস্থা নিতে ঢাকা জেলা প্রশাসককে অনুরোধ জানায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়। মন্ত্রণালয়ের চিঠিতে বলা হয়, ঢাকা মহানগরের ধানমন্ডি ও গুলশানে অবস্থিত লেকহেড গ্রামার স্কুলটি মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন না থাকায় এবং ধর্মীয় উগ্রবাদে অনুপ্রেরণা, উগ্রবাদী সংগঠন সৃষ্টি, জঙ্গি কার্যক্রমে পৃষ্ঠপোষকতাসহ জাতীয় ও স্বাধীনতার চেতনাবিরোধী কার্যক্রম পরিচালনার জন্য প্রতিষ্ঠানটির সব কার্যক্রম বন্ধের ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ করা হলো।
গত বছরের সেপ্টেম্বরে গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, দেশের নিষিদ্ধ ৩টি জঙ্গিগোষ্ঠীর সঙ্গে ঢাকার লেকহেড গ্রামার স্কুলের সাবেক অধ্যক্ষসহ অন্তত ৫ জন শিক্ষক ও একজন কর্মকর্তার যোগসূত্র পাওয়া যাচ্ছে। এর মধ্যে দুজন শিক্ষক ছিলেন আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের মাতৃসংগঠন জামাআতুল মুসলেমিনের ও দুজন হিযবুত তাহ্রীরের সঙ্গে যুক্ত। অপর এক শিক্ষক ও প্রশাসনিক কর্মকর্তা আইএস মতাদর্শী নব্য জেএমবির সঙ্গে যুক্ত।