English Version
আপডেট : ৪ অক্টোবর, ২০১৭ ১২:৪২

বড় ভাইয়ের স্ত্রীকে লাগাতার ধর্ষণের চেষ্টায় ছোট ভাই, অতঃপর….

অনলাইন ডেস্ক
বড় ভাইয়ের স্ত্রীকে লাগাতার ধর্ষণের চেষ্টায় ছোট ভাই, অতঃপর….

বড় ভাইয়ের স্ত্রীকে লাগাতার ধর্ষণের চেষ্টা করছিল ছোট ভাই। এই অভিযোগকে কেন্দ্র করে রাতে দুই ভাইয়ের সঙ্গে ঝগড়ার শুরু।

সকালে ফের দুই ভাইয়ের মধ্যে তর্ক-বিতর্ক শুরু হয়। অভিযোগ, ওই সময় রাগের মাথায় ছোট ভাইকে ধারালো অস্ত্রের কোপে খুন করেছে বড় ভাই। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের আলিপুরদুয়ারের মেটেলি ব্লকের বিধাননগর এলাকায়। এ ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। তবে অভিযুক্ত সুরেশ হোরোকে গ্রেফতার করেছে স্থানীয় পুলিশ।

জানা গেছে, বিধাননগর গ্রাম পঞ্চায়েতের জাহাজ বস্তি এলাকায় স্ত্রী ও দেড় বছরের ছেলেকে নিয়ে থাকেন অভিযুক্ত সুরেশ হোরো। দাদা-বৌদির সংসারেই থাকত ছোট ভাই হারকিউলিস। সুরেশ পেশায় স্থানীয় নাকটি চা বাগানের শ্রমিক। অভিযোগ, দীর্ঘদিন ধরে নিজের বৌদিকেই ধর্ষণের চেষ্টা চালাচ্ছিল হারকিউলিস। রবিবার বিষয়টি জানাজানি হয়ে যায়। রাতে এই নিয়ে দুই ভাইয়ের মধ্যে অশান্তি সৃষ্টি হয়। সোমবার ভোরে কাজে যাওয়ার সময়ে, সুরেশকে গালিগালাজ করে হারকিউলিস। সুরেশের স্ত্রীকে ধর্ষণ করার হুমকি দেয় সে। ফের দুই ভাইয়ের ঝগড়া শুরু হয়। অভিযোগ, ওই সময় সুরেশকে লাঠি দিয়ে মারে হারকিউলিস। এরপরই ধারালো অস্ত্র দিয়ে ভাইকে কোপাতে শুরু করে সুরেশ। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় হারকিউলিসের। খবর পেয়ে জাহাজবস্তি এলাকায় অভিযুক্ত সুরেশের বাড়িতে যায় মেটেলি থানার পুলিশ। মৃতদেহ উদ্ধার করে জলপাইগুড়ি সদর হাসপাতালে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়। আটক করা হয় সুরেশ হোরোকে।
 
ঘটনায় সুরেশের বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন তার দাদা রাজকুমার হোরো। সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই সুরেশকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তার বিরুদ্ধে খুনের মামলা রুজু করে তদন্ত শুরু হয়েছে। অভিযুক্তকে তিন দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে আদালত।