English Version
আপডেট : ১৪ নভেম্বর, ২০১৭ ১৪:০৩

‘বেশিরভাগ সাংবাদিক কপি-পেস্ট করেন’

অনলাইন ডেস্ক
‘বেশিরভাগ সাংবাদিক কপি-পেস্ট করেন’

সাংবাদিকতায় পেশাদারি মনোভাবের অভাব তুলে ধরে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক পরিবহনমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বেশিরভাগ সাংবাদিকই এখন কপি-পেস্ট করছেন। সাংবাদিকদের মধ্যে যা দেখবো তা লিখবো—এটা কি এখন আছে? একজন রিপোর্ট লিখেন অন্যদের কাছে শুনে শুনে।

সোমবার বিকেলে জাতীয় প্রেসক্লাবে সাংবাদিকদের এক অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। ইউনেস্কো কর্তৃক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ মার্চের ভাষণ বিশ্ব প্রামাণ্য শাখায় স্বীকৃতি পাওয়ায় বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে/একাংশ) ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন (ডিইউজে/একাংশ) সাংবাদিকদের আনন্দ সম্মিলনীর আয়োজন করে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, এখন দেখা যাচ্ছে—(অ্যাসাইনমেন্টে) একজন গেছেন অন্যরা যাননি। যিনি গেছেন তার কাছ থেকে নিয়ে অন্যরা রিপোর্ট তৈরি করেছেন। পরের দিন দেখা যায় একই রিপোর্ট সব পত্রিকায়।

একসময় নিজেও সাংবাদিক ছিলেন জানিয়ে সড়ক পরিবহনমন্ত্রী বলেন, যখন তারা নিজে যান না, তখন অন্যের কাছ থেকে নেয়া রিপোর্টটি নিয়ে রাজনৈতিক রিপোর্ট তৈরি করেন। এই কাজটাই এখন হচ্ছে। তিনি ক্ষোভ ও হতাশা প্রকাশ করে বলেন, আজকে এই উৎকর্ষ পেশাটাকে (সাংবাদিকতা) যে কী অবস্থায় আপনারা নিয়ে গেছেন! ব্যাঙের ছাতার মতো মিডিয়া সৃষ্টি হয়েছে।

সাংবাদিক নেতাদের মফস্বল সাংবাদিকদের কাছে গিয়ে তাদের অবস্থা দেখার আহ্বান জানিয়ে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, আমি অনুরোধ করবো—প্লিজ মফস্বলে যান, ওখানে কোনো সাংবাদিকতা নেই।

এ সময় তথ্যমন্ত্রীকে সাংবাদিকদের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, এখন সাংবাদিকরা যা পান তাতে চলে না। সাংবাদিকদের বাসায় বসে পড়াশোনা করার জন্য তো একটা মুড লাগে। তাদের তো উৎসাহ দরকার। পেটে নেই ভাত, ছেলে মেয়েদের খরচ আর বাড়ি ভাড়া দিতে পারছি না—এ অবস্থায় কিভাবে তিনি ভালো সাংবাদিকতা করবেন?

তিনি বলেন, আমি আগেও বলেছি—তথ্যমন্ত্রী গুরুত্ব দিয়ে সাংবাদিকদের বিষয়গুলো দেখবেন, তাদের সুবিধাগুলো দেখবেন। একটা মানবিক বিষয় আছে। এই মানবিক দৃষ্টিকোণটা যাতে উপেক্ষিত না হয়। কেন তারা সংঘাতের দিকে যাবেন। সাংবাদিকরা তো ভিন গ্রহের বাসিন্দা নন। আলোচনা করে বিষয়টির সমাধান করতে হবে। আমি বলবো, যুক্তিসঙ্গত সমাধান করে দিন।