English Version
আপডেট : ২ অক্টোবর, ২০১৭ ১২:৫৮

প্রমাণ করেছি, আমরা কী করতে পারি : প্রধানমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক
প্রমাণ করেছি, আমরা কী করতে পারি : প্রধানমন্ত্রী

পিলারে প্রথম স্প্যান বসানোর মধ্যে দিয়ে বহু প্রত্যাশিত পদ্মা সেতুর দৃশ্যমান হয়ে ওঠার খবরে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, এর মধ্যে দিয়ে প্রমাণ হয়েছে, বাংলাদেশ পারে। তার প্রেসসচিব ইহসানুল করিম জানিয়েছেন, রবিবার ভার্জিনিয়ার রিজ কার্লটন হোটেলে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের নেতাদের সঙ্গে এক মতবিনিময় অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

ওয়াশিংটন থেকে পাঠানো এক বিবৃতিতে প্রেসসচিব বলেন, গলব্লাডার অস্ত্রোপচারের পর চিকিৎসকরা প্রধানমন্ত্রীকে পূর্ণ বিশ্রামে থাকার পরামর্শ দিলেও তিনি যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন স্টেট থেকে আসা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনগুলোর নেতাদের সঙ্গে এই অনুষ্ঠানে অংশ নেন।  
তিনি আরো বলেন, আমি খুব খুশি। অপারেশনের পর চিকিৎসকরা তাঁকে সম্পূর্ণ বিশ্রাম নেওয়ার পরামর্শ দিলেও, এ দিন তিনি তা উপেক্ষা করেই দেখা করেছেন দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে। বিবৃতিতে বলা হয়, এটা ছিল একটা বড় চ্যালেঞ্জ। বাংলাদেশের জন্য একটা বড় সিদ্ধান্ত, কারণ এর সঙ্গে দেশের ভাবমূর্তি জড়িত ছিল। এত বড় আর খরস্রোতা একটা নদীর ওপর এত বড় একটা সেতু নির্মাণ করে আমরা বিশ্বের সামনে একাট উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করলাম। আমরা রাজনীতি করি মানুষের জন্য। আমরা কাজ করি মানুষের জন্য। আর আমরা যে তা পারি, তা করে দেখিয়েছি।

দুর্নীতি ও জালিয়াতির অভিযোগ তুলে পদ্মা সেতু প্রকল্প থেকে বিশ্বব্যাংকের মুখ ফিরিয়ে নেওয়ার পর, নিজেদের অর্থায়নেই তা করে দেখানোর সাহসী সিদ্ধান্ত নেওয়াকে স্মরণ করে তিনি বলেন, এটা ছিল একটা বড় চ্যালেঞ্জ, বাংলাদেশের জন্য বড় সিদ্ধান্ত, নিজেদের অর্থায়নে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করা আমাদের ভাবমূর্তির সঙ্গেও জড়িত। পদ্মার মতো একটি স্রোতস্বিনী নদীতে এমন বড়মাপের সেতু নির্মাণ কাজে হাত দিয়ে আমরা বিশ্বের বুকে উদাহরণ স্থাপন করেছি বলেও জানান তিনি।

এ সময় আবেগতাড়িত হয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা, বাঙালি জাতিরা যুদ্ধ করে দেশকে স্বাধীন করেছি। আমরা যা চাই তাই করতে পারি, যদি আমরা সৎ ও সংকল্পবদ্ধ থাকি। তিনি আরো বলেন, আমরা জনগণের জন্য রাজনীতি করি, জনগণের জন্য কাজ করি এবং আমরা পারি তা প্রমাণ করেছি। প্রেসসচিব বলেন, স্বপ্নের পদ্মা সেতু প্রকল্প বাস্তবায়নে পূর্ণ সমর্থন দিয়ে যাওয়ায় বাংলাদেশের মানুষ এবং প্রবাসী বাংলাদেশিদের ধন্যবাদ ও অভিনন্দন জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।